ওয়েবসাইটে সহজে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার উপায় - স্টেপ বাই স্টেপ গাইডলাইন


গুগল এডসেন্স পাওয়ার সহজ উপায়

অনেকেই প্রশ্ন করে কিভাবে গুগল এডসেন্স পাব? গুগল এডসেন্স পাওয়ার জন্য কি কি করতে হবে? তাদের জন্য গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় নিয়ে আলোচনা করলাম।

গুগল এডসেন্স পাওয়ার সহজ উপায়


গুগল এডসেন্স কি?
এডসেন্স হচ্ছে সার্চইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল এর একটি এডভার্টাইজিং নেটওয়ার্ক। এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট মালিকরা তাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন কোম্পানীর এড দিয়ে টাকা আয় করতে পারে। এই এড নেটওয়ার্ক এর এত জনপ্রিয়তার কারণ হচ্ছে এটি গুগলের প্রোডাক্ট তাই ফ্রড হওয়ার কোন ভয় নাই। এরা সবচেয়ে বেশি পেমেন্ট দেয় যা অন্য নেটওয়ার্ক থেকে পাওয়া যায় না। কিন্তু এদের রুলস এন্ড রেগুলেশন ও খুব শক্ত তি এপ্রুভাল পাওয়াটাও একটু কঠিন।


এডসেন্স কয় ধরণের?
এডসেন্স একাউন্ট ২ ধরণের। একটি হচ্ছে হোস্টেড একাউন্ট আরেকটি হচ্ছে নন-হোস্টেড একাউন্ট। হোস্টেড একাউন্ট হচ্ছে ইউটিউব এবং ব্লগস্পট ব্লগ এর জন্য। এই একাউন্ট এর এড আপনি আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করতে পারবেন না। আর নন-হোস্টেড একাউন্ট হচ্ছে এর এড আপনি আপনার ওয়েবসাইট, এপ যে কোন কিছুতে ব্যবহার করতে পারবেন।

এডসেন্স কিভাবে কাজ করে?
আপনার একটি একাউন্ট থাকতে হবে। সেখান থেকে ওয়েবসাইট এপ্রুভ করিয়ে নিতে হবে। তারপর এড একাউন্ট থেকে এড কোড নিয়ে আপনার ওয়েবসাইটে বসাতে হবে। ওয়বসাইটে এড শো করলে এড ভিউ এবং ক্লিক এর উপর ভিত্তি করে গুগল আপনাকে টাকা দিবে।

সহজে এপ্রুভাল পাওয়ার জন্য কি কি করতে হবে?


১। প্রথমে আপনার একটি ভাল মানের সাইট থাকতে হবে। সাইটটি কাস্টম ডোমেইন (.com, .net, .org) এ হতে হবে। ফ্রী সাইট যেমন ব্লগার বা ওয়ার্ডপ্রেস সাব ডোমেইন দিয়ে হবেনা। অনেকেই বলেন .tk সাইট দিয়ে পাওয়া যাবে কিনা? এগুলো দিয়ে যদি পানও বেশিদিন ইনকাম করতে পারবেন না। কারণ এইসব ফ্রি ডোমেইন এর সাইটগুলো ২ দিন পর নাই হয়ে যায়।

২। আপনার সাইটে ৩০-৩৫ টি ইউনিক আর্টিকেল থাকতে হবে তবে অনেকেই ২০-২৫ টা দিয়েও পাচ্ছে। কিন্তু আপনি প্রথমবারেই এপ্রুভাল পেতে চাইলে একবারে গুছিয়ে করাই ভাল। কোন কপি কনটেন্ট দেয়া যাবেনা। আর্টিকেলগুলো ৩০০-৪০০ ওয়ার্ড এর হতে হবে, ৫০০ ওয়ার্ড এর বেশি হলে ভাল।

৩। আপনার ডোমেইন এর বয়স ২-৩ মাস হতে হবে। অনেকে এর কমেও পাচ্ছে। কিন্তু আপনি একটা ডোমেইন নেয়ার পর সব কিছু রেডি করে ৩০-৩৫ টা আর্টিকেল দিতে গেলে এমনিতেই ২-৩ মাস লেগে যাবে। আর এইসব কাজে তাড়াহুড়া করে রিস্ক নেয়ার কি দরকার।

৪। রেগুলার ভাল ভাল পোস্ট দিতে হবে। এপ্রুভাল পাওয়ার পর রেগুলার পোস্ট না দিলে আপনার সাইট এডসেন্স থেকে সাসপেন্ড হয়ে যেতে পারে।

৫। সাইটের মেনু, ক্যটাগরিগুলো সুন্দর করে সাজানো থাকতে হবে।  About, Privacy, Disclaimer, Sitemap এই পেজগুলো এড করা থাকতে হবে।

৬। সাইটে অন্য কোন এড নেটওয়ার্ক এর এড ইউজ করা যাবেনা। থাকলে সেগুলো রিমুভ করে দিতে হবে। এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার পর অন্য নেটওয়ার্ক এর এড ব্যবহার করতে পারবেন।

৭। আপনার ব্লগটি গুগল ওয়েবমাস্টার এবং গুগল এনালাইটিক্স এ এড করে নিতে হবে। এবং ওয়েবমাস্টার এ সাইটম্যাপ সাবমিট করে নিতে হবে।

৮। আপনার ব্লগ এর জন্য কিছুদিন এসইও করতে হবে। কিছু ভিজিটর আসা শুরু হলে এবং আপনার ব্লগ পোস্টগুলো গুগলে ইনডেক্স হওয়ার পর এপ্লাই করতে হবে।

এডসেন্স পাওয়ার পর যে জিনিসগুলো করবেন না

১। কোন কপি কনটেন্ট দিবেননা। রেগুলার ইউনিক আর্টিকেল পোস্ট করে যাবেন।

২। ভুলেও নিজের এড এ নিজে ক্লিক করবেন না। তাহলে আপনার সাধের এডসেন্স একাউন্টটিই ব্যান হয়ে যাবে।

৩। হ্যাকিং, পাইরেসী, ক্রাইম এই রিলেটেড পোস্ট দিবেন না।

৪। পোস্ট এর ইমেজগুলো গুগল থেকে ডাউনলোড করে দেয়া যাবে না। নিজে বানিয়ে দিতে হবে।

৫। সাইটে কোন প্রকার এডাল্ট কনটেন্ট দেয়া যাবে না।

এগুলো মেনে চললেই আপনার সাধের এড একাউন্টটি নিরাপদ রাখতে পারবেন।


এডসেন্স থেকে আয় করা টাকা পাবেন কিভাবে?

গুগল থেকে পেমেন্ট পাওয়ার জন্য আপনার এড একাউন্ট এ আপনার নাম, এড্রেস ব্যাংক একাউন্ট দেয়া থাকতে হবে। আপনার প্রতিদিনের ইনকাম এডসেন্স একাউন্ট এ এড হতে থাকবে। ১০ ডলার হলে গুগল আপনার এড্রেস এ একটি পিন পাঠাবে আপনার এড্রেস ভেরিফাই করার জন্য। তারপর ভেরিফাই হয়ে গেলে একাউন্ট এ ১০০ ডলার হলে গুগল আপনার ব্যাংক একাউন্ট এ সরাসরি টাকা পাঠিয়ে দিবে। ১০০ ডলার এর নিচে হলে নেক্সট মাস এর ইনকাম এর সাথে পাবেন। ১০০ এর নিচে কোন পেমেন্ট পাঠায় না।

ওয়াবসাইটে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার সহজ উপায়

ওয়েবসাইটে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার সহজ উপায়গুলো আলোচনা করলাম। এবার আপনার পালা। সাইট রেডি করে এপ্লাই করে ফেলুন।

কিছু কথা- অনেকেই বলেন ভাই ফ্রী সাইট দিয়ে কিভাবে এডসেন্স পাব? .tk সাইট দিয়ে এডসেন্স পাব কিনা? আমার কথা হচ্ছে ভাই, ইনকাম যেহেতু করতে চাচ্ছেন তাহলে একটু খরচ করতে এত আপত্তি কোথায়। একটা কথা আছে যত গুড় তত মিষ্টি। আপনি ১ টাকাও ইনভেস্ট না করে গুগল থেকে হাজার হাজার টাকা আয় করার স্বপ্ন দেখছেন? এটা বোকামী হয়ে গেল না? আর এখন একটা ডোমেইন কিনতে ৮০০-৯০০ টাকার বেশি লাগেনা। এই টাকা খরচ করতেই যদি আপনার আপত্তি লাগে তাহলে আপনার অনলাইন ইনকাম এর দিকে না আগানোই ভাল। মানুষ বর্ত্মানে  ১৫-১৬ বছর পড়াশুনা করে, এত টাকা খরচ করে, এত পরিশ্রম করে একটা ভাল যব পায় না। সেখানে আপনি কিভাবে ২ দিনে ফ্রী ফ্রী টাকা ইনকাম করার কথা চিন্তা করেন। কলেজ এর ২/৩ টা বই কিনতেই হাজার বারোশ টাকা লেগে যায়। তাই যদি অনলাইন থেকে আয় করার ইচ্ছা থাকে তাহলে অল্প কিছু খরচ করার চিন্তা করে আগানোই ভাল। আর যখন কিছু টাকা খরচ করবেন তখন আপনর কাজের প্রতিও একাগ্রতা আসবে। আমার কথায় মনঃকষ্ট পেয়ে থাকলে আমাকে মাফ করবেন।

আমাদের এই পোস্টগুলোও পড়ে দেখতে পারেন-


আপনার কিছু জানার থাকলে নিচে কমেন্ট করুন অথবা আমাদের ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন। পোস্টটি ভাল লাগলে অবশ্যই আপনার ফ্রেন্ডদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
ওয়েবসাইটে সহজে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার উপায় - স্টেপ বাই স্টেপ গাইডলাইন ওয়েবসাইটে সহজে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার উপায় - স্টেপ বাই স্টেপ গাইডলাইন Reviewed by Admin on 1:45 PM Rating: 5

2 comments:

  1. আসসালামু আলাইকুম। ভাই আপনার পোষ্ট পড়ে অনেক কিছু জানতে পারলাম।আমার একটি ওয়েব সাইট আছে। কিভাবে বুঝব আমার সাইটটি এডসেন্স এপ্লাই করার জন্য উপযোগি কিনা??? www.techmasterbd.com

    ReplyDelete
    Replies
    1. এই পোষ্ট এ যে কন্ডিশন গুলো দেয়া আছে এগুলো ফিলাপ হলেই এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

      Delete

Powered by Blogger.